শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়ম

Table of Contents

শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়ম

সাপোজিটরি কী?

সাপোজিটরি হলো একটি লম্বা, পাতলা ও নমনীয় ট্যাবলেট যা পায়ুপথে প্রবেশ করানো হয়। এটি সাধারণত প্যারাসিটামল, আইবুপ্রোফেন, অ্যানেসথেটিক, স্টেরয়েড, অথবা অন্যান্য ওষুধের একটি নির্দিষ্ট মাত্রা ধারণ করে।

শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের কারণ

শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের প্রধান কারণগুলি হলো:

  • ওষুধ খাওয়ার অসুবিধা হলে
  • বারবার বমি হলে
  • জ্বর, ব্যথা, বা অন্যান্য চিকিৎসার জন্য

শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়ম

শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়মগুলি নিম্নরূপ:

  1. ওষুধের লেবেল পড়ুন এবং আপনার শিশুর জন্য সঠিক ডোজ নিশ্চিত করুন।
  2. সাপোজিটরির প্যাকেজিং থেকে এটি বের করুন।
  3. শিশুকে একটি আরামদায়ক অবস্থায় রাখুন, যেমন তার পিঠে শুয়ে বা তার পিঠে বাঁকানো পা দিয়ে।
  4. সাপোজিটরির মসৃণ প্রান্তটি শিশুর পায়ুপথে সোজা ঢোকান।
  5. সাপোজিটরিকে পায়ুপথে প্রায় 1 ইঞ্চি (2.5 সেমি) ঢোকান।
  6. সাপোজিটরিটি ঢোকানোর পরে, শিশুকে কয়েক মিনিটের জন্য শুয়ে থাকতে দিন।

সাপোজিটরি ব্যবহারের ঝুঁকি

সাপোজিটরি ব্যবহারের সাথে যুক্ত কিছু ঝুঁকি হলো:

  • অস্বস্তি
  • খিঁচুনি
  • রক্তপাত
  • ইনফেকশন

যদি আপনার শিশু সাপোজিটরি ব্যবহারের পরে কোনও ঝুঁকিপূর্ণ লক্ষণ দেখায়, তাহলে অবিলম্বে একজন ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করুন।

শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের টিপস

  • সাপোজিটরি ব্যবহারের আগে আপনার শিশুর হাত এবং পায়ু পরিষ্কার করুন।
  • সাপোজিটরিটি ব্যবহার করার আগে একটি লুব্রিকেন্ট, যেমন জেল বা তেল, প্রয়োগ করলে এটি ঢোকানো সহজ হবে।
  • আপনার শিশু যদি সাপোজিটরিটি ঢোকানোর সময় ব্যথা অনুভব করে, তাহলে তাকে শান্ত করার চেষ্টা করুন।

সাপোজিটরির ডোজ

সাপোজিটরির ডোজ শিশুর বয়স এবং ওজনের উপর নির্ভর করে। সাপোজিটরির লেবেলটিতে ডোজ নির্দেশাবলী রয়েছে। যদি আপনার সন্দেহ হয়, তাহলে আপনার শিশুর ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন। শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়ম

আরো পড়ুনঃ  দুর্জন বিদ্বান হলেও পরিত্যাজ্য ভাবসম্প্রসারণ

সাপোজিটরির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

সাপোজিটরির সাধারণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলি হলো:

  • অস্বস্তি
  • খিঁচুনি
  • রক্তপাত
  • ইনফেকশন

যদি আপনার শিশু সাপোজিটরি ব্যবহারের পরে কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখায়, তাহলে অবিলম্বে একজন ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করুন।

বাচ্চাদের সাপোজিটরি কতদূর লাগানো যায়

শিশুর জন্য মলদ্বারে সাপোজিটরি প্রয়োগ

উপকরণ:

  • সাপোজিটরি
  • লুব্রিকেন্ট (যেমন, জেল বা ক্রিম)

নির্দেশাবলী:

  1. আপনার সন্তাকে উল্টো করে শুইয়ে দিন, তার বাম পা উপরে উঠিয়ে দিন।
  2. আপনার সন্তানের মলদ্বার খুলতে, তার পেটের বোতামের দিকে লক্ষ্য করে আপনার আঙুল দিয়ে আলতো করে চাপুন।
  3. সাপোজিটরির ডগায় সামান্য লুব্রিকেন্ট লাগান। শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়ম
  4. সাপোজিটরিটিকে মলদ্বারের খোলার ভিতরে 1/2 থেকে 1 ইঞ্চি ঢোকান।
  5. সাপোজিটরিটিকে মলদ্বারে ঢোকানোর জন্য আপনার আঙুল দিয়ে আস্তে আস্তে চাপুন।

সাবধানতা:

  • সাপোজিটরিটিকে মলদ্বারের খুব গভীরে ঢোকান না। এটি ফিরে আসতে পারে।
  • যদি আপনার সন্তান ব্যথা অনুভব করে, তাহলে সাপোজিটরিটি ঢোকানো বন্ধ করুন। শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়ম

বিকল্প পদ্ধতি:

আপনি আপনার সন্তানের পিছনে দাঁড়িয়েও মলদ্বারে সাপোজিটরি প্রয়োগ করতে পারেন। আপনার সন্তানের পায়ের গোড়ালি ধরে তার পা উপরে উঠিয়ে দিন। আপনার সন্তানের মলদ্বার খুলতে, তার পেটের বোতামের দিকে লক্ষ্য করে আপনার আঙুল দিয়ে আলতো করে চাপুন। তারপর, উপরের নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

সাপোজিটরি প্রয়োগের সময় আপনার সন্তানকে আরামদায়ক রাখুন। আপনি তাকে একটি গল্প পড়তে পারেন, তাকে একটি খেলনা দেওয়ার চেষ্টা করতে পারেন, বা তাকে গান গাইতে পারেন।

শিশুদের সাপোজিটরি কতদিন কাজ করে

শিশুদের সাপোজিটরির কার্যকারিতা ওষুধের প্রকার এবং শিশুর বয়স এবং ওজনের উপর নির্ভর করে। সাধারণত, সাপোজিটরিগুলি 4-6 ঘন্টা পর্যন্ত কাজ করে। তবে, কিছু সাপোজিটরি 12 ঘন্টা পর্যন্ত কাজ করতে পারে। শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়ম

শিশুদের জন্য কিছু সাধারণ সাপোজিটরির কার্যকারিতা

  • প্যারাসিটামল সাপোজিটরি: 4-6 ঘন্টা শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়ম

  • অ্যাসিটামিনোফেন সাপোজিটরি: 4-6 ঘন্টা

  • ইবুপ্রোফেন সাপোজিটরি: 6-8 ঘন্টা

  • ডাইক্লোফেনাক সাপোজিটরি: 8-12 ঘন্টা

আপনার সন্তানের জন্য কোন সাপোজিটরি সবচেয়ে উপযুক্ত তা নির্ধারণ করার জন্য আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলুন।

আরো পড়ুনঃ  ইবনে সিনা হাসপাতাল যাত্রাবাড়ী

সাপোজিটরির কার্যকারিতা কতক্ষণ স্থায়ী হয় তা প্রভাবিত করে এমন কিছু কারণ

  • শিশুর বয়স এবং ওজন
  • ওষুধের ডোজ
  • শিশুর স্বাস্থ্য
  • শিশুর খাদ্যাভ্যাস
  • শিশুর শারীরিক পরিশ্রম

সাপোজিটরির কার্যকারিতা কতক্ষণ স্থায়ী হয় তা নিশ্চিত করতে, আপনার শিশুর ডাক্তারের নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

শিশুদের সাপোজিটরি দেওয়ার কত সময় পর জ্বর কমে?

শিশুদের সাপোজিটরি দেওয়ার পর জ্বর কমতে সাধারণত 30-60 মিনিট সময় লাগে। তবে, কিছু ক্ষেত্রে এটি আরও বেশি সময় নিতে পারে।

জ্বর কমতে কত সময় লাগে তা নির্ভর করে বেশ কয়েকটি কারণের উপর, যার মধ্যে রয়েছে:

  • শিশুর বয়স এবং ওজন
  • জ্বর কতটা উঁচু
  • শিশুর স্বাস্থ্যের সামগ্রিক অবস্থা
  • সাপোজিটরির ধরন এবং ডোজ

সাধারণত, শিশুদের জন্য প্যারাসিটামল সাপোজিটরি দেওয়ার পর জ্বর কমতে 30-60 মিনিট সময় লাগে। তবে, যদি শিশুর জ্বর খুব বেশি উঁচু হয়, তাহলে জ্বর কমতে আরও বেশি সময় লাগতে পারে। শিশুদের সাপোজিটরি ব্যবহারের নিয়ম

আপনার সন্তানের জ্বর কমতে কত সময় লাগছে তা নিশ্চিত করতে, আপনার সন্তানের ডাক্তারের সাথে কথা বলুন।

এখানে কিছু টিপস রয়েছে যা আপনার সন্তানের জ্বর কমাতে সাহায্য করতে পারে:

  • আপনার সন্তানকে হালকা পোশাক পরান।
  • আপনার সন্তানকে প্রচুর পরিমাণে তরল পান করান।
  • আপনার সন্তানকে শীতল পরিবেশে রাখুন।
  • আপনার সন্তানের মাথায় ঠান্ডা তোয়ালে রাখুন।

আপনার সন্তানের জ্বর যদি 3 দিনের বেশি স্থায়ী হয় বা যদি আপনার সন্তানের জ্বরের সাথে অন্যান্য লক্ষণ দেখা দেয়, তাহলে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।

96
Health

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top