ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

https://jobbd.org/%e0%a6%ad%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a6%a4%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%ae%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a7%80%e0%a6%b0-%e0%a6%aa%e0%a7%81/

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী হলেন নরেন্দ্র মোদী। তিনি ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য। তিনি ২০১৪ সালের ২৬শে মে থেকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি ভারতের দ্বিতীয় দীর্ঘতম মেয়াদী মুখ্যমন্ত্রী।

নরেন্দ্র মোদীর পুরো নাম হল নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদী। তিনি ১৯৫০ সালের ১৭ই সেপ্টেম্বর ভারতের গুজরাটের ভাদোদরা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী এবং সমাজসেবী। তিনি ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা ছিলেন। তিনি গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীও ছিলেন।

নরেন্দ্র মোদী ১৯৭৫ সালে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসে যোগ দেন। তিনি ১৯৮০ সালে ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দেন। তিনি ১৯৮৯ সালে গুজরাটের বিধানসভায় নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৯৫ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত গুজরাটের শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন। তিনি ২০০১ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

২০১৪ সালে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ভারতের সাধারণ নির্বাচনে জয়ী হয়। নরেন্দ্র মোদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হন। তিনি ২০১৯ সালের সাধারণ নির্বাচনে পুনরায় নির্বাচিত হন।

নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে ভারত অর্থনীতি, সামরিক শক্তি এবং আন্তর্জাতিক প্রভাব বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি ভারতকে একটি শক্তিশালী রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করছেন।

ইন্ডিয়া প্রধানমন্ত্রী কে?

ভারতের প্রধানমন্ত্রী হলেন নরেন্দ্র মোদী। তিনি ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সদস্য। তিনি ২০১৪ সালের ২৬শে মে থেকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি ভারতের দ্বিতীয় দীর্ঘতম মেয়াদী মুখ্যমন্ত্রী।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

নরেন্দ্র মোদীর পুরো নাম হল নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদী। তিনি ১৯৫০ সালের ১৭ই সেপ্টেম্বর ভারতের গুজরাটের ভাদোদরা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী এবং সমাজসেবী। তিনি ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা ছিলেন। তিনি গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীও ছিলেন।

নরেন্দ্র মোদী ১৯৭৫ সালে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসে যোগ দেন। তিনি ১৯৮০ সালে ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দেন। তিনি ১৯৮৯ সালে গুজরাটের বিধানসভায় নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৯৫ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত গুজরাটের শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন। তিনি ২০০১ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

আরো পড়ুনঃ  ভারতের শিক্ষা মন্ত্রীর নাম কি 2022

২০১৪ সালে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ভারতের সাধারণ নির্বাচনে জয়ী হয়। নরেন্দ্র মোদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হন। তিনি ২০১৯ সালের সাধারণ নির্বাচনে পুনরায় নির্বাচিত হন।

নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে ভারত অর্থনীতি, সামরিক শক্তি এবং আন্তর্জাতিক প্রভাব বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি ভারতকে একটি শক্তিশালী রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করছেন।

কতজন প্রধানমন্ত্রী জীবিত আছেন

ভারতের জীবিত প্রধানমন্ত্রী একজন। তিনি হলেন নরেন্দ্র মোদী। তিনি ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সদস্য। তিনি ২০১৪ সালের ২৬শে মে থেকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি ভারতের দ্বিতীয় দীর্ঘতম মেয়াদী মুখ্যমন্ত্রী।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

ভারতের জীবিত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীদের মধ্যে রয়েছেন:

  • ইন্দিরা গান্ধী (১৯৬৬-১৯৭৭, ১৯৮০-১৯৮৪)
  • রাজীব গান্ধী (১৯৮৪-১৯৮৯)
  • প্রধানমন্ত্রী পি. ভি. নরসিংহ রাও (১৯৯১-১৯৯৬)
  • প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং (২০০৪-২০১৪)

ইন্দিরা গান্ধী ১৯৮৪ সালের ৩১শে অক্টোবর নিহত হন। রাজীব গান্ধী ১৯৯১ সালের ২১শে মে নিহত হন। পি. ভি. নরসিংহ রাও ২০০৪ সালের ২৩শে ডিসেম্বর মারা যান। মনমোহন সিং ২০২০ সালের ২৭শে মে মারা যান।

সুতরাং, ভারতের জীবিত প্রধানমন্ত্রী একজন। তিনি হলেন নরেন্দ্র মোদী।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

১৯৯৫ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন

১৯৯৫ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন পি. ভি. নরসিংহ রাও। তিনি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের সদস্য ছিলেন। তিনি ১৯৯১ সালের ১০ই মে থেকে ১৯৯৬ সালের ১২ই মে পর্যন্ত ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ভারতের ১১তম প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

পি. ভি. নরসিংহ রাও ১৯২১ সালের ২৮শে জুন ভারতের হায়দ্রাবাদে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন একজন প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ, অর্থনীতিবিদ এবং কূটনীতিবিদ। তিনি ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা ছিলেন। তিনি ভারতের অর্থমন্ত্রীও ছিলেন।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

পি. ভি. নরসিংহ রাও ১৯৪২ সালে ভারতীয় স্বাধীনতা আন্দোলনে যোগ দেন। তিনি ১৯৪৭ সালে ভারতের স্বাধীনতা লাভের পর ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসে যোগ দেন। তিনি ১৯৬৭ সালে হায়দ্রাবাদের বিধানসভায় নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৭১ সালে হায়দ্রাবাদের মুখ্যমন্ত্রী হন। তিনি ১৯৭৮ সালে হায়দ্রাবাদের মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করেন।

আরো পড়ুনঃ  বাবাকে নিয়ে ইসলামিক কিছু কথা

১৯৯১ সালের সাধারণ নির্বাচনে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস জয়ী হয়। পি. ভি. নরসিংহ রাও ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৯৬ সালের সাধারণ নির্বাচনে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস পরাজিত হয়। তিনি ১৯৯৬ সালের ১২ই মে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করেন।

পি. ভি. নরসিংহ রাও ১৯৯৮ সালের ২৩শে ডিসেম্বর মারা যান। তিনি ভারতের একজন প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ এবং অর্থনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত ছিলেন।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর তালিকা

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর তালিকা

ক্রম নাম দল কার্যকাল
জওহরলাল নেহরু ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ১৫ আগস্ট ১৯৪৭ – ২৭ মে ১৯৬৪
লাল বাহাদুর শাস্ত্রী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ২৭ মে ১৯৬৪ – ১১ জানুয়ারি ১৯৬৬
ইন্দিরা গান্ধী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ১৯ জানুয়ারি ১৯৬৬ – ২৪ মার্চ ১৯৭৭
মোরারজি দেশাই জনতা পার্টি ২৪ মার্চ ১৯৭৭ – ২৮ জুলাই ১৯৭৯
চন্দ্র শেখর জনতা পার্টি ২৮ জুলাই ১৯৭৯ – ১০ অক্টোবর ১৯৮০
ইন্দিরা গান্ধী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ১১ অক্টোবর ১৯৮০ – ৩১ অক্টোবর ১৯৮৪
রাজীব গান্ধী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ৩১ অক্টোবর ১৯৮৪ – ২১ মে ১৯৯১
চন্দ্র শেখর জনতা দল ১০ নভেম্বর ১৯৯০ – ১০ জুন ১৯৯১
পি. ভি. নরসিংহ রাও ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ১০ জুন ১৯৯১ – ১২ মে ১৯৯৬
১০ এ. বি. বাজপেয়ী ভারতীয় জনতা পার্টি ১২ মে ১৯৯৬ – ১৩ অক্টোবর ১৯৯৯
১১ ইন্দ্র কুমার গুজরাল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ১৩ অক্টোবর ১৯৯৯ – ২২ মে ২০০৪
১২ মনমোহন সিং ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ২২ মে ২০০৪ – ১৭ মে ২০১৪
১৩ নরেন্দ্র মোদী ভারতীয় জনতা পার্টি ২৬ মে ২০১৪ – বর্তমান

নির্বাচন

ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে সাধারণ নির্বাচনের মাধ্যমে নির্বাচিত করা হয়। সাধারণ নির্বাচনে জনগণ তাদের পছন্দের রাজনৈতিক দলকে ভোট দেয়। যে দল সবচেয়ে বেশি ভোট পায়, সেই দলের নেতা ভারতের প্রধানমন্ত্রী হন।

আরো পড়ুনঃ  নুসরাত জাহান নামের আরবি অর্থ কি

কার্যকাল

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কার্যকাল সাধারণত পাঁচ বছরের হয়। তবে, প্রধানমন্ত্রী যদি দুইবার নির্বাচিত হন, তাহলে তার কার্যকাল ১০ বছর পর্যন্ত হতে পারে।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

পরিবর্তন

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পদে অনেক পরিবর্তন হয়েছে। ১৯৪৭ সালে ভারত স্বাধীন হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত ১৪ জন প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। এর মধ্যে একজন প্রধানমন্ত্রী, লাল বাহাদুর শাস্ত্রী, নির্বাচিত হওয়ার পরপরই মারা যান। অন্য একজন প্রধানমন্ত্রী, ইন্দিরা গান্ধী, হত্যাকাণ্ডের শিকার হন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা ও কার্যাবলী

ভারতের সংসদীয় শাসনব্যবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা ও কার্যাবলী অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রধানমন্ত্রী হলেন কেন্দ্রীয় সরকারের প্রধান এবং তিনি মন্ত্রীপরিষদের নেতা। প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা ও কার্যাবলীকে নিম্নলিখিতভাবে আলোচনা করা যেতে পারে:

মন্ত্রীপরিষদের প্রধান হিসেবে

প্রধানমন্ত্রী হলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীপরিষদের প্রধান। তিনি মন্ত্রীপরিষদের সদস্যদের নিয়োগ করেন, তাদের পোর্টফোলিও বণ্টন করেন এবং তাদের কাজের তত্ত্বাবধান করেন। প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রীপরিষদের বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন এবং নীতিনির্ধারণে নেতৃত্ব দেন।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

রাষ্ট্রপতির প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে

প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির প্রধান উপদেষ্টা। তিনি রাষ্ট্রপতিকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে পরামর্শ দেন। প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শক্রমেই রাষ্ট্রপতি মন্ত্রীপরিষদের সদস্যদের নিয়োগ, বরখাস্ত, মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক আহ্বান, আইন প্রণয়ন, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ইত্যাদি ক্ষেত্রে পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

সংসদের নেতা হিসেবে

প্রধানমন্ত্রী সংসদের লোকসভার নেতা। তিনি লোকসভায় সরকারি দলের নেতা এবং তিনি সরকারের নীতি ও কর্মসূচি সংসদে উপস্থাপন করেন। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বেই সংসদে সরকারের আইন পাস হয়।

দেশের প্রধান হিসেবে

প্রধানমন্ত্রী হলেন দেশের প্রধান। তিনি দেশের সার্বভৌমত্বের প্রতীক। তিনি দেশের অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক নীতির পরিচালনা করেন। প্রধানমন্ত্রী দেশের প্রতিনিধি হিসেবে আন্তর্জাতিক সম্মেলন ও বৈঠকে যোগদান করেন।ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পুরো নাম কি

অন্যান্য ক্ষমতা ও কার্যাবলী

প্রধানমন্ত্রীর আরও কিছু ক্ষমতা ও কার্যাবলী রয়েছে, যেমন:

  • তিনি ভারতীয় সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও বিমানবাহিনীর সর্বাধিনায়ক।
  • তিনি ভারতীয় মুদ্রার মুখ্য রূপকার।
  • তিনি ভারতীয় বিচার ব্যবস্থার শীর্ষে অবস্থিত সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির নিয়োগ প্রদান করেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা ও কার্যাবলী অত্যন্ত ব্যাপক। তিনি ভারতের সরকারের প্রধান এবং তিনি রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্বের প্রতীক।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top