পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

https://jobbd.org/%e0%a6%aa%e0%a6%b6%e0%a7%8d%e0%a6%9a%e0%a6%bf%e0%a6%ae%e0%a6%ac%e0%a6%99%e0%a7%8d%e0%a6%97%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%96%e0%a6%be%e0%a6%a6%e0%a7%8d%e0%a6%af-%e0%a6%ae%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a7%8d/

পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম শ্রী রথীন ঘোষ। তিনি ২০২১ সালের ২ মে থেকে এই পদে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর পুত্র।

পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য ও সরবরাহ বিভাগের দায়িত্ব হল রাজ্যের খাদ্য নিরাপত্তা, খাদ্য সরবরাহ, খাদ্য পরিশোধনা, খাদ্য সংরক্ষণ, খাদ্য নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি বিষয়ের তত্ত্বাবধান করা।

পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান অর্থমন্ত্রীর নাম কি 2022

২০২২ সালের ১১ জুলাই, পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পান চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। তিনি পশ্চিমবঙ্গের প্রথম মহিলা অর্থমন্ত্রী।

চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ যিনি সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস দলের সদস্য। তিনি ২০১১ সালের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে কলকাতা পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত হন।

চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের একজন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে অর্থনীতি বিভাগে স্নাতক হন। তিনি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে এম. এ ডিগ্রী লাভ করেন।

চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ১৯৯৬ সালে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন। তিনি ২০০৬ সালে কলকাতা পৌরসভায় নির্বাচিত হন এবং ২০১০ সাল পর্যন্ত পৌরসভার সদস্য ছিলেন। তিনি ২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় নির্বাচিত হন এবং ২০১৬ সাল পর্যন্ত বিধানসভার সদস্য ছিলেন।

চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ২০২১ সালের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে কলকাতা পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্র থেকে তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হন। তিনি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

আরো পড়ুনঃ  জ্বরের এন্টিবায়োটিক ট্যাবলেট এর নাম

পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান অর্থমন্ত্রীর নাম কি

পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান অর্থমন্ত্রীর নাম হল অমিত মিত্র। তিনি একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ যিনি সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস দলের সদস্য। তিনি ২০২১ সালের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে কলকাতা পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত হন।

অমিত মিত্র ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের একজন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে অর্থনীতি বিভাগে স্নাতক হন। তিনি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে এম. এ ডিগ্রী লাভ করেন এবং ডিউক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি সম্পন্ন করেন।

অমিত মিত্র ১৯৯৬ সালে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন। তিনি ২০০৬ সালে কলকাতা পৌরসভায় নির্বাচিত হন এবং ২০১০ সাল পর্যন্ত পৌরসভার সদস্য ছিলেন। তিনি ২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় নির্বাচিত হন এবং ২০১৬ সাল পর্যন্ত বিধানসভার সদস্য ছিলেন।পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

অমিত মিত্র ২০২১ সালের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে কলকাতা পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্র থেকে তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হন। তিনি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীও বটে।

পশ্চিমবঙ্গে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রধান হলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন।

পশ্চিমবঙ্গের নতুন শিক্ষা মন্ত্রীর নাম কি?

পশ্চিমবঙ্গের নতুন শিক্ষা মন্ত্রীর নাম ব্রাত্য বসু। তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের একজন সদস্য। তিনি ২০২৩ সালের ১৯শে জুলাই থেকে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এর আগে, ব্রাত্য বসু পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পর্যটন ও যুবক কল্যান মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি একজন জনপ্রিয় লেখক এবং অভিনেতাও বটে।

পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2023?

পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম রথীন ঘোষ। তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের একজন সদস্য। তিনি ২০২১ সালের ৭ই মে থেকে পশ্চিমবঙ্গের খাদ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এর আগে, রথীন ঘোষ পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্থানীয় সরকার ও পঞ্চায়েত মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি একজন জনপ্রিয় কৃষক নেতা এবং সমাজসেবকও বটে।পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

আরো পড়ুনঃ  ভারতের জাতীয় মাছের নাম কি

বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রীর নাম কি?

বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রীর নাম অমিত মিত্র। তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের একজন সদস্য। তিনি ২০২১ সালের ৭ই মে থেকে পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এর আগে, অমিত মিত্র পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি একজন অর্থনীতিবিদ এবং জনপ্রিয় রাজনীতিবিদও বটে।পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

পশ্চিমবঙ্গের নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী কে?

পশ্চিমবঙ্গের নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রীর নাম শশী পাঁজা। তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের একজন সদস্য। তিনি ২০২১ সালের ৭ই মে থেকে পশ্চিমবঙ্গের নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এর আগে, শশী পাঁজা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মন্ত্রীসভায় ছিলেন না। তিনি একজন চিকিৎসক এবং জনপ্রিয় সমাজকর্মীও বটে।পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

পশ্চিমবঙ্গের প্রথম মহিলা মুখ্যমন্ত্রী কে ছিলেন?

পশ্চিমবঙ্গের প্রথম মহিলা মুখ্যমন্ত্রী হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি ২০১১ সালের ২৫ মে প্রথমবারের মতো পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হন। এরপর তিনি ২০১৬ সালের ২৭ মে দ্বিতীয়বারের মতো এবং ২০২১ সালের ২ মে তৃতীয়বারের মতো পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯৫৫ সালের ৫ জানুয়ারি কলকাতার এক বাঙালি পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৮৭ সালের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে কলকাতা উত্তর-পশ্চিম কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর তিনি ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০১, ২০০৬, ২০১১, ২০১৬ এবং ২০২১ সালের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে নির্বাচিত হয়েছিলেন।পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একজন বাগ্মী রাজনীতিবিদ। তিনি প্রায়শই দিদি বলে অভিহিত করা হয়ে থাকে। তিনি তার জনপ্রিয়তার জন্য পরিচিত।

ভারতের প্রথম শিক্ষা মন্ত্রীর নাম কি

ভারতের প্রথম শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন মৌলানা আবুল কালাম আজাদ। তিনি ১৮৮৮ সালের ১১ নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন এবং ১৯৫৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি মৃত্যুবরণ করেন। তিনি একজন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, লেখক, এবং রাজনীতিবিদ ছিলেন। তিনি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের সভাপতিও ছিলেন।পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

আরো পড়ুনঃ  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিখ্যাত কবিতার লাইন

মৌলানা আজাদ ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা ছিলেন। তিনি হিন্দু-মুসলিম সম্প্রীতির প্রবক্তা ছিলেন এবং দ্বিজাতিতত্ত্বের ভিত্তিতে ভারত বিভাগের বিরোধিতা করেছিলেন।

মৌলানা আজাদ ভারতের স্বাধীনতার পর প্রথম শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন। তিনি ভারতের শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (UGC) এবং ভারতীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান (IIT) প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি প্রাথমিক শিক্ষার জন্য একটি জাতীয় নীতিও প্রণয়ন করেন।পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

মৌলানা আজাদ ভারতের শিক্ষা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে গেছেন। তিনি ভারতের শিক্ষা ব্যবস্থাকে আধুনিক এবং গণতান্ত্রিক করে তুলতে কাজ করেছেন।পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

মাওলানা আবুল কালাম আজাদ কত বছর ভারতের শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন

মাওলানা আবুল কালাম আজাদ ভারতের স্বাধীনতার পর প্রথম শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে ১৯৪৭ সালের ১৫ই আগস্ট থেকে ১৯৫৮ সালের ২২শে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। সুতরাং, তিনি মোট ১১ বছর ৪ মাস ভারতের শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন।

তিনি ভারতের শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (UGC) এবং ভারতীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান (IIT) প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি প্রাথমিক শিক্ষার জন্য একটি জাতীয় নীতিও প্রণয়ন করেন।

ভারতে আইসিএসই প্রস্তাবের সময় শিক্ষামন্ত্রী কে ছিলেন

ভারতে আইসিএসই প্রস্তাবের সময় শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন ড. রমেশ पोখরিয়াল নিশঙ্ক। তিনি ২০১৪ সালের ২৬শে মে থেকে ২০১৯ সালের ৩১শে মে পর্যন্ত ভারতের শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ভারতীয় জনতা পার্টির একজন সদস্য ছিলেন।

ড. নিশঙ্ক ২০১৪ সালের ভারতীয় সাধারণ নির্বাচনে উত্তরাখণ্ডের রামপুর থেকে লোকসভা সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি ২০১৪ সালের ২৬শে মে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন সরকারে শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন।

ড. নিশঙ্ক ভারতে আইসিএসই প্রবর্তনের পক্ষ ছিলেন। তিনি বিশ্বাস করতেন যে আইসিএসই ভারতের শিক্ষা ব্যবস্থাকে আন্তর্জাতিক মানের করে তুলতে সাহায্য করবে। তিনি ২০১৫ সালের ১লা জুলাই থেকে ভারতে আইসিএসই প্রবর্তনের ঘোষণা করেন।পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য মন্ত্রীর নাম কি 2022

ড. নিশঙ্কের শিক্ষামন্ত্রী থাকাকালীন ভারতের শিক্ষা ব্যবস্থায় বেশ কিছু পরিবর্তন হয়েছিল। তিনি প্রাথমিক শিক্ষার জন্য একটি জাতীয় নীতি প্রণয়ন করেন। তিনি মাধ্যমিক শিক্ষার মান উন্নত করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top