Sura Bakara Ses 2 Ayat

আজকে আমরা Sura Bakara Ses 2 Ayat সম্পর্কে জানবো। এর সাথে সূরা বাকারার শেষ দুই আয়াতের ফজিলত এই সবকিছু সম্পর্কে জানাবো আপনাদেরকে। তো চলুন শুরু করা যাক।

Sura Bakara Ses 2 Ayat – সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াত

Sura Bakara Ses 2 Ayat

২৮৫

آمَنَ الرَّسُولُ بِمَا أُنْزِلَ إِلَيْهِ مِنْ رَبِّهِ وَالْمُؤْمِنُونَ كُلٌّ آمَنَ بِاللَّهِ وَمَلَائِكَتِهِ وَكُتُبِهِ وَرُسُلِهِ لَا نُفَرِّقُ بَيْنَ أَحَدٍ مِنْ رُسُلِهِ وَقَالُوا سَمِعْنَا وَأَطَعْنَا غُفْرَانَكَ رَبَّنَا وَإِلَيْكَ الْمَصِيرُ

অর্থ:

রাসূলুল্লাহ তার প্রতিপালকের পক্ষ থেকে যা অবতীর্ণ হয়েছে তাতে বিশ্বাস করেন এবং মুমিনগণও সকলেই বিশ্বাস করে আল্লাহ, তাঁর ফেরেশতাগণ, তাঁর কিতাবসমূহ এবং তাঁর রাসূলগণ সম্বন্ধে। তারা বলে, আমরা কেবলমাত্র তাঁর রাসূলগণের মধ্যে কোনো পার্থক্য করি না। আমরা শুনেছি এবং মেনেছি। হে আমাদের পালনকর্তা! আমাদের ক্ষমা করুন। তোমারই দিকেই প্রত্যাবর্তন।

২৮৬

لَا يُكَلِّفُ اللَّهُ نَفْسًا إِلَّا وُسْعَهَا لَهَا مَا كَسَبَتْ وَعَلَيْهَا مَا اكْتَسَبَتْ رَبَّنَا لَا تُؤَاخِذْنَا إِنْ نَسِينَا أَوْ أَخْطَأْنَا رَبَّنَا وَلَا تَحْمِلْ عَلَيْنَا إِصْرًا كَمَا حَمَلْتَهُ عَلَى الَّذِينَ مِنْ قَبْلِنَا رَبَّنَا وَلَا تُحَمِّلْنَا مَا لَا طَاقَةَ لَنَا بِهِ وَاعْفُ عَنَّا وَاغْفِرْ لَنَا وَارْحَمْنَا أَنْتَ مَوْلَانَا فَانْصُرْنَا عَلَى الْقَوْمِ الْكَافِرِينَ

অর্থ:

আল্লাহ কারো উপর তার সাধ্যাতীত ভার চাপিয়ে দেন না। প্রত্যেক ব্যক্তি যা অর্জন করে তা তার জন্য এবং যা সে উপার্জন করে তা তার বিরুদ্ধে। হে আমাদের পালনকর্তা! যদি আমরা ভুলে যাই অথবা ভুল করি, তবে আমাদেরকে শাস্তি দিও না। হে আমাদের পালনকর্তা! আমাদের এমন দায়িত্ব অর্পণ করো না, যেমন তুমি আমাদের পূর্ববর্তীদের অর্পণ করেছ। হে আমাদের পালনকর্তা! আমাদের সাধ্যাতীত কিছু আমাদের উপর চাপিয়ে দিও না। আমাদের পাপ মোচন করো, আমাদের ক্ষমা করো এবং আমাদের প্রতি দয়া করো। তুমিই আমাদের অভিভাবক। সুতরাং কাফির সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে আমাদেরকে সাহায্য করো।

আরো পড়ুনঃ  গোসলের ফরজ কয়টি

এই Sura Bakara Ses 2 Ayat কে “আমানার রাসূল” নামেও ডাকা হয়। এই আয়াত দুটিতে ইসলামের মূল বিশ্বাসসমূহ সংক্ষিপ্তভাবে উল্লেখ করা হয়েছে। প্রথম আয়াতে ঈমানের ছয়টি স্তম্ভের কথা বলা হয়েছে। দ্বিতীয় আয়াতে আল্লাহর রহমত ও ক্ষমার প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াত বাংলা উচ্চারণ – Sura Bakara Ses 2 Ayat

সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াত বাংলা উচ্চারণ - Sura Bakara Ses 2 Ayat

আয়াত ২৮৫

আমানার রাসূলু মা উঁযুহিল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামা বিমা আনঝিলা ইলাইহি মিন রব্বিহী ওয়াল মুমিনুন। কুল্লুন আমানা বিল্লাহি ওয়া মালায়িকাতihi ওয়া কুতুবিহি ওয়া রাসূলিহি লা নুফারিকু বাইনা আহাদিম মিন রাসূলিহি। ওয়া কুলনা সামিআ’না ওয়া আতা’না গুফরানাকা রব্বানআ ওয়া ইলাইকাল মাসিয়ির।

অর্থ:

পরম করুণাময়, অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি।

রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) যা কিছু তাঁর প্রতিপালক তাঁর কাছে অবতীর্ণ করেছেন তাতে ঈমান এনেছেন এবং মুমিনগণও। সকলেই আল্লাহ, তাঁর ফেরেশতাগণ, তাঁর কিতাবসমূহ, তাঁর রাসূলগণের প্রতি ঈমান এনেছে। আমরা তাঁর রাসূলগণের মধ্যে কোনো পার্থক্য করি না। আমরা বলেছি, আমরা শুনেছি এবং মেনে নিলাম, হে আমাদের পালনকর্তা! ক্ষমা করুন আমাদের, আমাদের রব, আপনার দিকেই আমাদের প্রত্যাবর্তন।

আয়াত ২৮৬

লা ইউকাল্লিফুল্লাহু নাফসান ইল্লা ওয়াসআহা। লাহা মা কাসাবাত ওয়া আলাইহা মা আকতাবাত। রাব্বানা লা তুআখখিযনা ইন্না নাসিনা আও আমরান। রাব্বানা ওয়া লা তুহামিল আলাইনা ইছরান কামা হামালতাহু আলাল্লাযীনা মিন ক্বাবলিনা। রাব্বানা ওয়া লাতুহামিলনা মা লা তাকতাআনা ‘আলাইহি ওয়া’ফফারনা। ওয়াগফিরলানা ওয়ার্হামনা। আনতা মাওলানা ফানছুরনা ‘আলাল ক্বাওমিল কাফিরিন।

অর্থ:

আল্লাহ কারো উপর তার সাধ্যাতীত কোনো ভার চাপিয়ে দেন না। প্রত্যেকের জন্য তার যা অর্জন হয়েছে তা তারই জন্য এবং তার উপর তার যা বর্তায় তা তারই জন্য। হে আমাদের পালনকর্তা! আমরা ভুলে গেলে অথবা ভুল করে ফেললে আমাদেরকে আপনি অপরাধী করবেন না। হে আমাদের পালনকর্তা! আমাদের পূর্ববর্তীদের উপর যেমন বোঝা চাপিয়ে দিয়েছেন, তেমন বোঝা আমাদের উপর চাপিয়ে দেবেন না। হে আমাদের পালনকর্তা! আমাদের এমন বোঝা চাপিয়ে দেবেন না, যা আমাদের সাধ্যাতীত। আমাদের ক্ষমা করুন এবং আমাদের মাফ করুন। আপনি আমাদের অভিভাবক। কাফির সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে আমাদেরকে সাহায্য করুন।

আরো পড়ুনঃ  সাহাবীদের নাম অর্থসহ ছেলেদের

সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াত এর ফজিলত – Sura Bakara Ses 2 Ayat & Its virtues

সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াত এর ফজিলত

সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াত (Sura Bakara Ses 2 Ayat) হলো কোরআনুল কারিমের ২৮৫ এবং ২৮৬ নম্বর আয়াত। এ দুটি আয়াতকে “আমানার রাসুলু” বা “আল-বালাগান” নামেও ডাকা হয়। এ দুটি আয়াতের ফজিলত সম্পর্কে অনেক হাদিস বর্ণিত হয়েছে।

হাদিসে বর্ণিত (Sura Bakara Ses 2 Ayat) সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াতের ফজিলত

  • দৈনিক পাঠ করলে শয়তান থেকে হেফাজত পাওয়া যায়।
  • রাতের বেলা ঘুমাতে যাওয়ার আগে পাঠ করলে সারা রাত নিরাপদে কাটানো যায়।
  • পাঠ করলে কিয়ামতের দিন আল্লাহর কাছে সুপারিশ করবে।
  • পাঠ করলে অন্তরের কলুষতা দূর হয়।
  • পাঠ করলে জ্ঞান ও প্রজ্ঞা বৃদ্ধি পায়।
  • পাঠ করলে রিযিক বৃদ্ধি পায়।
  • পাঠ করলে রোগ-বালাই থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

(Sura Bakara Ses 2 Ayat) সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াতের আমল

  • দৈনিক পাঠ করার জন্য, সকাল-সন্ধ্যা দুইবার করে পাঠ করা যায়।
  • রাতের বেলা ঘুমাতে যাওয়ার আগে পাঠ করার জন্য, ঘুমাতে যাওয়ার আগে দুইবার করে পাঠ করা যায়।
  • মসজিদে প্রবেশের সময় পাঠ করার জন্য, মসজিদে প্রবেশের সময় একবার করে পাঠ করা যায়।
  • কোনো বিপদ-আপদ থেকে বাঁচার জন্য, বিপদ-আপদের সময় একবার করে পাঠ করা যায়।

সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াত এর শিক্ষা – Sura Bakara Ses 2 Ayat & its education

সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াত (Sura Bakara Ses 2 Ayat) হলো:

আল্লাহ ছাড়া কোন ইলাহ নেই। তিনি এক, একক, তিনি সত্য, তিনি অমুখাপেক্ষী। তিনি জন্ম দেননি, এবং জন্মগ্রহণ করেননি। এবং তাঁর সমতুল্য কেউ নেই।

এই আয়াত দুটি ইসলামের মূল বিশ্বাসের উপর আলোকপাত করে। প্রথম আয়াতটি তাওহীদের মূলনীতির উপর জোর দেয়, যা হলো একমাত্র আল্লাহর ইবাদত করা এবং তাঁর সাথে কাউকে শরীক না করা। দ্বিতীয় আয়াতটি আল্লাহর গুণাবলীর উপর আলোকপাত করে। আল্লাহ এক, একক, সত্য, অমুখাপেক্ষী, জন্ম দেননি এবং জন্মগ্রহণ করেননি। তাঁর সমতুল্য কেউ নেই।

আরো পড়ুনঃ  ইসলামিক স্ট্যাটাস আরবি সহ

এই Sura Bakara Ses 2 Ayat থেকে আমরা নিম্নলিখিত শিক্ষাগুলো নিতে পারি:

  • একমাত্র আল্লাহর ইবাদত করা এবং তাঁর সাথে কাউকে শরীক না করা। এই আয়াতটি তাওহীদের মূলনীতির উপর জোর দেয়। আল্লাহ ছাড়া অন্য কোন ইলাহ নেই। তিনি এক, একক, তিনি সত্য, তিনি অমুখাপেক্ষী। তিনি জন্ম দেননি, এবং জন্মগ্রহণ করেননি। এবং তাঁর সমতুল্য কেউ নেই। তাই আমাদের একমাত্র আল্লাহর ইবাদত করতে হবে এবং তাঁর সাথে কাউকে শরীক করা যাবে না।
  • আল্লাহর গুণাবলীর উপর বিশ্বাস করা। এই আয়াতটি আল্লাহর গুণাবলীর উপর আলোকপাত করে। আল্লাহ এক, একক, সত্য, অমুখাপেক্ষী, জন্ম দেননি এবং জন্মগ্রহণ করেননি। তাঁর সমতুল্য কেউ নেই। তাই আমাদের আল্লাহর গুণাবলীর উপর বিশ্বাস করতে হবে।

সুরা বাকারার শেষ দুই আয়াত (Sura Bakara Ses 2 Ayat) টি ইসলামের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আয়াতগুলোর মধ্যে একটি। এটি আমাদের ইসলামের মূল বিশ্বাসগুলোর উপর শিক্ষিত করে।

আরো পড়ুনঃ আলহামদুলিল্লাহ আলা কুল্লি হাল অর্থ কি

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top