বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

https://jobbd.org/%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%82%e0%a6%b2%e0%a6%be%e0%a6%a6%e0%a7%87%e0%a6%b6-%e0%a6%ac%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%82%e0%a6%95%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%ac%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a6%ae%e0%a6%be/

আব্দুর রউফ তালুকদার হলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর। তিনি ২০২২ সালের ১২ জুলাই থেকে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি বাংলাদেশের সিরাজগঞ্জ জেলার একজন প্রবীণ সরকারি কর্মকর্তা। তিনি ১৯৬৪ সালে সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসা প্রশাসন ইনস্টিটিউট থেকে এমবিএ এবং যুক্তরাজ্যের একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উন্নয়ন ব্যবস্থাপনা বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

তিনি ১৯৮০ সালে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসে যোগদান করেন। তিনি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন, যার মধ্যে রয়েছে:

  • অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব
  • অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের সচিব
  • বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক
  • বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক

তিনি একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিত। তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হিসেবে দায়িত্ব পালন করার সময় ব্যাংকের কার্যক্রমকে আরও গতিশীল করার জন্য কাজ করছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এখনও পর্যন্ত কোনো নারী গভর্নর নেই। ২০২৩ সালের ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আব্দুর রউফ তালুকদার। তিনি একজন পুরুষ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রথম নারী ডেপুটি গভর্নর হলেন নাজনীন সুলতানা। তিনি ২০১৭ সালের ১২ মার্চ থেকে ২০১৯ সালের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত এই পদে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ ব্যাংকার হিসেবে পরিচিত। তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

বাংলাদেশ ব্যাংকে নারীদের উচ্চ পদে প্রতিনিধিত্ব বাড়ানোর জন্য সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। আশা করা যায়, ভবিষ্যতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর পদে একজন নারীকে দেখা যাবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের মেয়াদ

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের মেয়াদ চার বছর। তবে, সরকার চাইলে মেয়াদ বাড়াতে পারে। তবে, গভর্নরের বয়স ৬৭ বছরের মধ্যে থাকতে হবে।

আরো পড়ুনঃ  আবরার ফাইয়াজ নামের অর্থ কি

বাংলাদেশ ব্যাংক অর্ডার, ১৯৭২ অনুযায়ী, গভর্নর পদে নিয়োগ দেওয়া হয়। সরকার গভর্নর পদে নিয়োগ দেয় এবং এর মেয়াদ হবে চার বছর। সরকার চাইলে মেয়াদ বাড়াতে পারবে। তবে, গভর্নরের বয়স ৬৭ বছরের মধ্যে থাকতে হবে।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

বর্তমানে, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আব্দুর রউফ তালুকদার। তিনি ২০২২ সালের ১২ জুলাই থেকে এই পদে দায়িত্ব পালন করছেন।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

বাংলাদেশ ব্যাংকের পদবী সমূহ

বাংলাদেশ ব্যাংক বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এটি দেশের মুদ্রানীতি নির্ধারণ, অর্থনীতি নিয়ন্ত্রণ, ব্যাংকিং ব্যবস্থার নিয়ন্ত্রণ ও নিয়ম-নীতি প্রণয়ন এবং বাস্তবায়ন, এবং বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবস্থার পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব পালন করে।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

বাংলাদেশ ব্যাংকের পদবী সমূহকে নিম্নলিখিতভাবে শ্রেণীবদ্ধ করা যেতে পারে:

  • পরিচালন পর্ষদ: বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ হল ব্যাংকের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী সংস্থা। এই পর্ষদে একজন গভর্নর, একজন ডেপুটি গভর্নর, তিনজন উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তা এবং চারজন ব্যক্তিত্ব সদস্য হিসেবে থাকেন। গভর্নর পর্ষদের সভাপতি এবং ডেপুটি গভর্নর সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
  • মহাপরিচালক: মহাপরিচালক হলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। তিনি ব্যাংকের দৈনন্দিন কার্যক্রমের তত্ত্বাবধান ও পরিচালনা করেন।
  • নির্বাহী পরিচালক: নির্বাহী পরিচালক হলেন মহাপরিচালকের অধীনস্থ প্রধান কর্মকর্তা। তারা বিভিন্ন বিভাগের দায়িত্ব পালন করেন।
  • উপ-পরিচালক: উপ-পরিচালক হলেন নির্বাহী পরিচালকের অধীনস্থ কর্মকর্তা। তারা বিভিন্ন শাখা ও কার্যালয়ের দায়িত্ব পালন করেন।
  • প্রধান অর্থনীতিবিদ: প্রধান অর্থনীতিবিদ হলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থনৈতিক গবেষণা বিভাগের প্রধান। তিনি ব্যাংকের অর্থনৈতিক নীতিমালা প্রণয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।
  • অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারী: বাংলাদেশ ব্যাংকে বিভিন্ন পদে কর্মকর্তা-কর্মচারী কর্মরত আছেন। তাদের পদবীর মধ্যে রয়েছে সহকারী মহাব্যবস্থাপক, উপ-মহাব্যবস্থাপক, মহাব্যবস্থাপক, উপ-পরিচালক, পরিচালক, অফিসার, সিনিয়র অফিসার, প্রিন্সিপাল অফিসার, সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার, সহকারী অফিসার, সিনিয়র সহকারী অফিসার, সাঁটলিপিকার, অফিস সহায়ক, ইত্যাদি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পদবীগুলো জাতীয় বেতন স্কেল, ২০১৫ অনুযায়ী নির্ধারিত হয়।

বাংলাদেশের প্রথম গভর্নর জেনারেল কে ছিলেন

বাংলার প্রথম গভর্নর জেনারেল ছিলেন লর্ড ওয়ারেন হেস্টিংস। তিনি ১৭৭৩ সালের ২২ জুলাই থেকে ১৭৮৫ সালের ২২ জুন পর্যন্ত এই পদে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির একজন কর্মচারী ছিলেন এবং ১৭৫৭ সালের পলাশীর যুদ্ধের পর বাংলার শাসক হয়েছিলেন।

আরো পড়ুনঃ  হারিয়ে যাওয়া মানুষকে নিয়ে কিছু কথা

ওয়ারেন হেস্টিংস একজন দক্ষ প্রশাসক ছিলেন। তিনি বাংলায় ব্রিটিশ শাসনের ভিত্তি স্থাপন করেন এবং বিভিন্ন প্রশাসনিক সংস্কার করেন। তিনি বাংলায় প্রথম স্থায়ী সরকার প্রতিষ্ঠা করেন, বাংলার অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করেন, এবং শিক্ষা ও সংস্কৃতির উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

ওয়ারেন হেস্টিংসের শাসনকালে বাংলায় ব্রিটিশ শাসনের ভিত্তি স্থাপিত হয় এবং বাংলার ইতিহাসে একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় রচিত হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রথম গভর্নর কে

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রথম গভর্নর ছিলেন আ ন ম হামিদুল্লাহ। তিনি ১৯৭২ সালের ১৮ জানুয়ারি থেকে ১৯৭৫ সালের মার্চ পর্যন্ত এই পদে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ছিলেন একজন ব্যাংকার এবং স্বাধীনতাপূর্ব পাকিস্তান আমলে ইস্টার্ন ব্যাংকিং করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন।

আ ন ম হামিদুল্লাহ একজন দক্ষ ব্যাংকার ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠার পর এর কাঠামোগত উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের মুদ্রানীতি নির্ধারণ, ব্যাংকিং ব্যবস্থার নিয়ন্ত্রণ, এবং বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবস্থার পরিচালনায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।

আ ন ম হামিদুল্লাহর শাসনকালে বাংলাদেশ ব্যাংক একটি পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রীয় ব্যাংক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান ডেপুটি গভর্নর কে

২০২৩ সালের ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত, বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান ডেপুটি গভর্নর হলেন নূরুন নাহার। তিনি ২০২২ সালের ২ জুলাই থেকে এই পদে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ ব্যাংকার হিসেবে পরিচিত। তিনি বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

নূরুন নাহার ১৯৬৫ সালে কিশোরগঞ্জ জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৮৪ সালে বিএসসি এবং ২০০১ সালে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ১৯৮৯ সালে সহকারী পরিচালক হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকে যোগদান করেন। ২০১৯ সালে তিনি নির্বাহী পরিচালক পদে পদোন্নতি লাভ করেন।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

ডেপুটি গভর্নর পদে দায়িত্ব নেওয়ার পর, নূরুন নাহার বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন কার্যক্রমকে আরও গতিশীল করার জন্য কাজ করছেন। তিনি বিশেষ করে ব্যাংকিং ব্যবস্থার নিয়ন্ত্রণ ও নিয়ম-নীতি প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন এবং বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবস্থার পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন।

আরো পড়ুনঃ  how are you এর বাংলা অর্থ কি

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর তালিকা

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরদের তালিকা

ক্রমিক নং নাম দায়িত্ব গ্রহণ দায়িত্ব ত্যাগ
আ ন ম হামিদুল্লাহ ১৮ জানুয়ারি ১৯৭২ মার্চ ১৯৭৫
এ কে নাজিরউদ্দীন আহমেদ ১৯ নভেম্বর ১৯৭৪ ১৩ জুলাই ১৯৭৬
মোঃ নূরুল ইসলাম ১৩ জুলাই ১৯৭৬ ১২ এপ্রিল ১৯৮৭
মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন ১৩ এপ্রিল ১৯৮৭ ২৭ নভেম্বর ১৯৯২
মোহাম্মদ আলী ২৮ নভেম্বর ১৯৯২ ২৪ জুন ১৯৯৬
আহমেদ ফজলুল হক ২৫ জুন ১৯৯৬ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০০১
ড. মোহাম্মদ ফখরুদ্দিন ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০০১ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৫
ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ ১ মে ২০০৫ ৩০ এপ্রিল ২০০৯
ড. আতিউর রহমান ১ মে ২০০৯ ৩০ এপ্রিল ২০১৬
১০ ফজলে কবির ১৬ মার্চ ২০১৬ ৩ জুলাই ২০২২
১১ আব্দুর রউফ তালুকদার ৪ জুলাই ২০২২ বর্তমান

বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নরের মেয়াদ কত বছর

২০২৩ সালের ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত, বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নরের নাম আব্দুর রউফ তালুকদার। তিনি ২০২২ সালের ৪ জুলাই থেকে এই পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের মেয়াদ চার বছর। তবে, সরকার চাইলে তাকে পুনর্নিয়োগ দিতে পারে। আব্দুর রউফ তালুকদারের বর্তমান মেয়াদ ২০২৬ সালের ৩ জুলাই পর্যন্ত। তবে, সরকার চাইলে তাকে পুনর্নিয়োগ দিতে পারে।

তাই, আব্দুর রউফ তালুকদারের বর্তমান মেয়াদ চার বছর বা তার কম হতে পারে।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান অর্থ সচিব কে

২০২৩ সালের ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত, বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান অর্থ সচিব হলেন ড. মো. খায়েরুজ্জামান মজুমদার। তিনি ২০২৩ সালের ৩১ আগস্ট থেকে এই পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

ড. মো. খায়েরুজ্জামান মজুমদার ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসে যোগ দেন। তিনি ১১ তম বিসিএসের প্রশাসন ক্যাডারের একজন কর্মকর্তা। তিনি জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব হওয়ার আগে অর্থ বিভাগের সামষ্টিক অর্থনীতি অনুবিভাগে অতিরিক্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এর আগে, অর্থ বিভাগের অর্থ সচিবের দায়িত্ব পালন করছিলেন ফাতিমা ইয়াসমিন। তিনি ২০২৩ সালের ১১ জুলাই থেকে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে যোগ দেন।বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নর কে

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top