আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

https://jobbd.org/%e0%a6%86%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%9c%e0%a7%87%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%9f%e0%a6%bf%e0%a6%a8%e0%a6%be-%e0%a6%ac%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%ae-%e0%a6%ab%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a7%8d-2/

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

আর্জেন্টিনা

  • গোলরক্ষক: এমিলিয়ানো মার্টিনেজ
  • ডিফেন্ডার: ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো, নিকোলাস ওটামেন্দি, লুকাস মার্টিনেস, মার্কোস আকুনা
  • মিডফিল্ডার: লিওনেল মেসি, রদ্রিগো ডি পল, জিওভানি লো সেলসো
  • আক্রমণভাগ: লওটারো মার্টিনেস, আনহেল দি মারিয়া, লাউতারো মার্টিনেজ

ফ্রান্স

  • গোলরক্ষক: হুগো লোরিস
  • ডিফেন্ডার: লুকাস হারনান্ডেজ, রবেন ডিয়াস, কিলিয়ান এমবাপ্পে, বেনজামিন পাভার্ড
  • মিডফিল্ডার: থুয়ান কোমান, পিয়েরে-এমেরিক ওবামেয়াঙ্গ, আন্দ্রেস গরিৎস্কা
  • আক্রমণভাগ: কিলিয়ান এমবাপ্পে, করিম বেনজেমা, আলিসন কবাকো

উল্লেখ্য:

  • আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি
  • ফ্রান্সের অধিনায়ক আলিসন কবাকো
  • আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল এস্কালোনি
  • ফ্রান্সের কোচ ডিডিয়ে দেচ্যাম

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল – এর পরিসংখ্যান

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল – এর পরিসংখ্যান

পরিসংখ্যান আর্জেন্টিনা ফ্রান্স
ম্যাচ ১২ ১২
জয়
পরাজয়
ড্র
গোলের ব্যবধান ১৭-১৬
গোলের গড় ১.৪২ ১.৩৩
সর্বশেষ ম্যাচ ০-৩ (রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮)
সর্বশেষ জয় ২-১ (গ্রুপ পর্ব, বিশ্বকাপ ১৯৭৮)
সর্বশেষ পরাজয় ০-৩ (শেষ ষোলোর ম্যাচ, রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮)
সর্বশেষ ড্র ১-১ (আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ, ২০১৪)

আর্জেন্টিনা এবং ফ্রান্স দুটি বিশ্বকাপজয়ী দল। আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জয়লাভ করেছে তিনবার (১৯৭৮, ১৯৮৬, ২০২২), আর ফ্রান্স জয়লাভ করেছে একবার (১৯৯৮)।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

দুদল একে অপরের মুখোমুখি হয়েছে মোট ১২ বার। আর্জেন্টিনা জয়লাভ করেছে ৬ বার, ফ্রান্স জয়লাভ করেছে ৩ বার, আর ৩ বার ম্যাচটি ড্র হয়েছে।

সর্বশেষ ম্যাচে ফ্রান্স আর্জেন্টিনাকে ৩-০ গোলে পরাজিত করেছিল ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের শেষ ষোলোর ম্যাচে। তবে, এর আগের ম্যাচে আর্জেন্টিনা ফ্রান্সকে ২-১ গোলে পরাজিত করেছিল ১৯৭৮ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে।

আরো পড়ুনঃ  বাবাকে নিয়ে ইসলামিক কিছু কথা

এই ম্যাচটিতে আর্জেন্টিনাকে ফেভারিট হিসেবে দেখা হচ্ছে। আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপের এই আসরে দাপটের সঙ্গে খেলে যাচ্ছে। তারা দলগত পারফরম্যান্সে ফ্রান্সের চেয়ে এগিয়ে বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে, ফ্রান্সের কাছেও অনেক ভালো খেলোয়াড় রয়েছে। বিশেষ করে কিলিয়ান এমবাপ্পে একজন দুর্দান্ত ফরোয়ার্ড। তাই, এই ম্যাচটি খুবই লড়াইয়ের হতে পারে।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর টাইমলাইন

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর টাইমলাইন

বছর আসর রাউন্ড ফলাফল
১৯৩০ ফিফা বিশ্বকাপ গ্রুপ পর্ব আর্জেন্টিনা ৩-২ ফ্রান্স

| ১৯৭৮ | ফিফা বিশ্বকাপ | গ্রুপ পর্ব | আর্জেন্টিনা ২-১ ফ্রান্স |

| ১৯৮৬ | ফিফা বিশ্বকাপ | কোয়ার্টার ফাইনাল | আর্জেন্টিনা ২-০ ফ্রান্স | | ১৯৯৮ | ফিফা বিশ্বকাপ | গ্রুপ পর্ব | ফ্রান্স ৩-০ আর্জেন্টিনা |

| ২০০৬ | ফিফা বিশ্বকাপ | গ্রুপ পর্ব | আর্জেন্টিনা ১-১ ফ্রান্স |

| ২০১৪ | ফিফা বিশ্বকাপ | গ্রুপ পর্ব | আর্জেন্টিনা ২-২ ফ্রান্স |

| ২০১৮ | ফিফা বিশ্বকাপ | শেষ ষোলোর ম্যাচ | ফ্রান্স ৩-০ আর্জেন্টিনা |

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল – এর লাইভ স্ট্রিম কোথায় দেখতে পাওয়া যাবে

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল – এর লাইভ স্ট্রিম ভারতে দেখা যাবে স্পোর্টস ১৮ এবং স্পোর্টস ১৮ এইচডি চ্যানেলে। এছাড়াও, ম্যাচটি লাইভ স্ট্রিম করা হবে জিও সিনেমা অ্যাপে।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

বিশ্বের অন্যান্য দেশে, ম্যাচটি লাইভ স্ট্রিম করা হবে ফিফার অফিসিয়াল স্ট্রীমিং প্ল্যাটফর্ম ফিফাটিভিতে। এছাড়াও, বিভিন্ন দেশের টেলিভিশন চ্যানেল এবং অনলাইন প্ল্যাটফর্মগুলিতে ম্যাচটি লাইভ স্ট্রিম করা হবে।

ভারতে

  • টিভিতে: স্পোর্টস ১৮ এবং স্পোর্টস ১৮ এইচডি
  • অনলাইনে: জিও সিনেমা

বিশ্বের অন্যান্য দেশে

  • ফিফাটিভি
  • বিভিন্ন দেশের টেলিভিশন চ্যানেল এবং অনলাইন প্ল্যাটফর্ম

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল ম্যাচ

২০২২ বিশ্বকাপের ফাইনালে আর্জেন্টিনা এবং ফ্রান্সের মধ্যে ম্যাচটি ছিল একটি উত্তেজনাপূর্ণ এবং টানটান লড়াই। ম্যাচটি ৩-৩ গোলে ড্র হওয়ার পর পেনাল্টি শুট-আউটে ৪-২ গোলে জিতে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হয়।

আর্জেন্টিনা ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলে। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে লিওনেল মেসির গোলে তারা এগিয়ে যায়। তবে ম্যাচের ৪০ মিনিটে কিলিয়ান এমবাপ্পের গোলে সমতা ফেরে ফ্রান্স।

আরো পড়ুনঃ  How much does a military lawyer cost

দ্বিতীয়ার্ধে আর্জেন্টিনা আবারও এগিয়ে যায়। ম্যাচের ৫২ মিনিটে লাউতারো মার্টিনেজের গোলে তারা ২-১ গোলে এগিয়ে যায়। তবে ম্যাচের ৮০ মিনিটে কোরেন্তিন তোলিসো এবং ৮১ মিনিটে আঁতোয়া গ্রিজম্যানের গোলে ২-২ সমতা ফেরে ফ্রান্স।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে কোনো গোল না হওয়ায় ম্যাচ গড়ায় পেনাল্টি শুট-আউটে। পেনাল্টি শুট-আউটে আর্জেন্টিনা সব চারটি পেনাল্টি গোল করে। অন্যদিকে ফ্রান্স তিনটি পেনাল্টি গোল করে এবং একটি মিস করে।

এই জয়ের মাধ্যমে আর্জেন্টিনা তাদের তৃতীয় বিশ্বকাপ শিরোপা জয় করে। ৭০ বছর পর তারা বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হয়।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স ফাইনাল খেলা

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স ফাইনাল খেলা

২০২২ বিশ্বকাপের ফাইনালে আর্জেন্টিনা এবং ফ্রান্সের মধ্যে ম্যাচটি ছিল একটি উত্তেজনাপূর্ণ এবং টানটান লড়াই। ম্যাচটি ৩-৩ গোলে ড্র হওয়ার পর পেনাল্টি শুট-আউটে ৪-২ গোলে জিতে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হয়।

ম্যাচের বিবরণ

আর্জেন্টিনা ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলে। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে লিওনেল মেসির গোলে তারা এগিয়ে যায়। তবে ম্যাচের ৪০ মিনিটে কিলিয়ান এমবাপ্পের গোলে সমতা ফেরে ফ্রান্স।

দ্বিতীয়ার্ধে আর্জেন্টিনা আবারও এগিয়ে যায়। ম্যাচের ৫২ মিনিটে লাউতারো মার্টিনেজের গোলে তারা ২-১ গোলে এগিয়ে যায়। তবে ম্যাচের ৮০ মিনিটে কোরেন্তিন তোলিসো এবং ৮১ মিনিটে আঁতোয়া গ্রিজম্যানের গোলে ২-২ সমতা ফেরে ফ্রান্স।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে কোনো গোল না হওয়ায় ম্যাচ গড়ায় পেনাল্টি শুট-আউটে। পেনাল্টি শুট-আউটে আর্জেন্টিনা সব চারটি পেনাল্টি গোল করে। অন্যদিকে ফ্রান্স তিনটি পেনাল্টি গোল করে এবং একটি মিস করে।

ফলাফল

  • আর্জেন্টিনা: ৪-২ (পেনাল্টি শুট-আউটে)
  • ফ্রান্স: ৩-৩ (মূল খেলা এবং অতিরিক্ত সময়ে)

শীর্ষ খেলোয়াড়

  • আর্জেন্টিনা: লিওনেল মেসি, লাউতারো মার্টিনেজ
  • ফ্রান্স: কিলিয়ান এমবাপ্পে, আঁতোয়া গ্রিজম্যান

ফ্রান্স বনাম আর্জেন্টিনা ফাইনাল

২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্স এবং আর্জেন্টিনা মুখোমুখি হয়েছিল। ম্যাচটি ছিল একটি উত্তেজনাপূর্ণ এবং টানটান লড়াই। ম্যাচটি ৩-৩ গোলে ড্র হওয়ার পর পেনাল্টি শুট-আউটে ৪-২ গোলে জিতে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হয়।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

আরো পড়ুনঃ  পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দল খেলোয়াড়

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলে আর্জেন্টিনা। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে লিওনেল মেসির গোলে তারা এগিয়ে যায়। তবে ম্যাচের ৪০ মিনিটে কিলিয়ান এমবাপ্পের গোলে সমতা ফেরে ফ্রান্স।

দ্বিতীয়ার্ধে আর্জেন্টিনা আবারও এগিয়ে যায়। ম্যাচের ৫২ মিনিটে লাউতারো মার্টিনেজের গোলে তারা ২-১ গোলে এগিয়ে যায়। তবে ম্যাচের ৮০ মিনিটে কোরেন্তিন তোলিসো এবং ৮১ মিনিটে আঁতোয়া গ্রিজম্যানের গোলে ২-২ সমতা ফেরে ফ্রান্স।

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে কোনো গোল না হওয়ায় ম্যাচ গড়ায় পেনাল্টি শুট-আউটে। পেনাল্টি শুট-আউটে আর্জেন্টিনা সব চারটি পেনাল্টি গোল করে। অন্যদিকে ফ্রান্স তিনটি পেনাল্টি গোল করে এবং একটি মিস করে।

এই জয়ের মাধ্যমে আর্জেন্টিনা তাদের তৃতীয় বিশ্বকাপ শিরোপা জয় করে। ৭০ বছর পর তারা বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হয়।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

ম্যাচের শীর্ষ খেলোয়াড়রা হলেন:

  • আর্জেন্টিনা: লিওনেল মেসি, লাউতারো মার্টিনেজ
  • ফ্রান্স: কিলিয়ান এমবাপ্পে, আঁতোয়া গ্রিজম্যান

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স খেলা কতক্ষণ

আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স ফাইনাল খেলাটি ছিল একটি টানটান লড়াই। ম্যাচটি মূল খেলায় এবং অতিরিক্ত সময়ে ৩-৩ গোলে ড্র হয়। ফলে খেলা গড়ায় পেনাল্টি শুট-আউটে। পেনাল্টি শুট-আউটে আর্জেন্টিনা ৪-২ গোলে জিতে বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হয়।

ম্যাচটি মূল খেলা এবং অতিরিক্ত সময়ে মোট ১২০ মিনিট স্থায়ী হয়। এরপর পেনাল্টি শুট-আউটে আরও ৭ মিনিট সময় যোগ করা হয়। মোট মিলিয়ে ম্যাচটি ১২৭ মিনিট স্থায়ী হয়।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

বাংলাদেশ সময় অনুসারে, ম্যাচটি শুরু হয়েছিল রাত ৮:৩০ মিনিটে এবং শেষ হয়েছিল রাত ১২:০৭ মিনিটে।

ফুটবল বিশ্বকাপ কে জিতল?

২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপ আর্জেন্টিনা জিতেছে। ফাইনালে ফ্রান্সকে পেনাল্টি শুট-আউটে ৪-২ গোলে হারিয়ে তারা তাদের তৃতীয় বিশ্বকাপ শিরোপা জয় করে। এই জয়ের মাধ্যমে লিওনেল মেসি তার ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পান।আর্জেন্টিনা বনাম ফ্রান্স জাতীয় ফুটবল দল এর লাইন-আপ

আর্জেন্টিনার হয়ে লিওনেল মেসি, লাউতারো মার্টিনেজ এবং অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার গোলে তারা ৩-১ গোলে এগিয়ে যায়। তবে ফ্রান্সের হয়ে কিলিয়ান এমবাপ্পে এবং আঁতোয়া গ্রিজম্যানের গোলে তারা সমতা ফেরে ৩-৩ গোলে। নির্ধারিত সময় এবং অতিরিক্ত সময়ে কোনো গোল না হওয়ায় ম্যাচ গড়ায় পেনাল্টি শুট-আউটে। পেনাল্টি শুট-আউটে আর্জেন্টিনা সব চারটি পেনাল্টি গোল করে। অন্যদিকে ফ্রান্স তিনটি পেনাল্টি গোল করে এবং একটি মিস করে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top